মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C

জুডিশিয়াল মুন্সীখানা শাখা

  • শাখার সাংগঠনিক কাঠামো
  • শাখার পরিচিতি
  • কার্যক্রম
  • নাগরিক সেবা
  • ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা
  • কর্মচারীবৃন্দ
  • সভা
  • চলতি প্রকল্পসমূহ
  • শাখার ফর্মসমূহ
  • ডিজিটাল গার্ড ফাইল
  • আইন ও পলিসি
  • অন্যান্য
  • যোগাযোগ

প্রোফাইল

প্রোফাইল

জুডিশিয়াল মুন্সীখানা শাখা

প্রোফাইল

জুডিশিয়াল ও মুন্সীখানা শাখার কার্যাবলী/কর্মপরিধি

 

( শাখার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাঃ সহকারী কশিনার/সিনিয়র সহকারী কমিশনার)

 

1)বিচারিক কার্যক্রম।

2)আইন-শৃঙ্খলা, চোরাচালান, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ ও লোমহর্ষক মামলা নিস্পত্তি সংক্রান্ত মাসিক সভার যাবতীয় কার্যক্রম।

3)জরুরী পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োগ (আইন-শৃংখলা, পরীক্ষা কেন্দ্রে ) সংক্রান্ত যাবতীয় কার্যক্রম।

4)রাজনৈতিক কারণে দায়েরকৃত মামলা প্রত্যাহার সংক্রান্ত যাবতীয় কার্যক্রম।

5)বিজ্ঞ সরকারী কৌসূলীদের (নিয়োগ ও সম্মানী প্রদান) সংস্থাপন বিষয়ক যাবতীয় কার্যক্রম।

6)এফিডেভিট সংক্রান্ত কার্যক্রম।

7)আইন-শৃংখলা, মোবাইল কোর্ট পরিচালনা, চোরাচালান ও মাদক দ্রব্য সংক্রান্ত সাপ্তাহিক, পাক্ষিক ও মাসিক প্রতিবেদন বিষয়ক যাবতীয় কার্যক্রম।

8)বিভিন্ন প্রকার বিল ( বিজ্ঞাপন, লাশ পরিবহন) সংক্রান্ত যাবতীয় কার্যক্রম।

9)ম্যারেজ রেজিস্ট্রার সংক্রান্ত যাবতীয় কার্যক্রম।

10)কলকারখানা ব্যবস্থাপনা সংক্রান্ত যাবতীয় কার্যক্রম।

11)আগ্নেয়াস্ত্র লাইসেন্স সংক্রান্ত যাবতীয় কার্যক্রম।

12)আমোদ প্রমোদ (সিনেমা, যাত্রা ও পুতুল নাচ লাইসেন্স, মেলা ও অনুষ্ঠানের অনুমতি) সংক্রান্ত যাবতীয় কার্যক্রম।

প্রোফাইল

জুডিসিয়েল মুন্সীখানা শাখার সিটিজেন চার্টারঃ

 

১। আগ্নেয়াস্ত্র লাইসেন্স ইস্যু ও নবায়নঃ

(ক) নতুন একনলা ও দোনলা বন্দুক/রাইফেল-এর লাইসেন্স ইস্যুর জন্য আবেদন প্রাপ্তির পর তদমত্মক্রমে প্রতিবেদন প্রেরণের জন্য পুলিশ সুপার, জেলা বিশেষ শাখা, কুমিলস্না বরাবর প্রেরণ করা হয়। প্রতিবেদন প্রাপ্তির পর ব্যক্তিগত শুনানী গ্রহণপূর্বক নতুন লাইসেন্স ইস্যু করা হয়। পিসত্মল/রিভলবার-এর লাইসেন্স প্রাপ্তির আবেদনের সাথে সাথে তদমত্মক্রমে প্রতিবেদন প্রেরণের জন্য পুলিশ সুপার, জেলা বিশেষ শাখা, কুমিলস্না বরাবর প্রেরণ করা হয়। তদমত্ম প্রতিবেদন প্রাপ্তির পর লাইসেন্স প্রদানের অনুমতির জন্য স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে প্রেরণ করা হয়।

            (খ) লাইসেন্স নবায়নের ফি প্রদানপূর্বক নবায়নের জন্য আবেদন করলে সাথে সাথে নবায়ন করা হয়। 

২। বিস্ফোরক দ্রব্যের লাইসেন্স প্রদান ও নবায়নঃ

(ক) আবেদন প্রাপ্তির পর তা সংশিস্নষ্ট সংস্থাসমূহে তদমেত্মর জন্য প্রেরণ করা হয়। তদমত্ম প্রতিবেদন পাওয়ার পর পরীক্ষামেত্ম লাইসেন্স প্রদান করা হয়।

            (খ) লাইসেন্স নবায়নের ফি প্রদানপূর্বক নবায়নের জন্য আবেদন করলে সাথে সাথে নবায়ন করা হয়।

৩। সিনেমা হলের লাইসেন্স প্রদান ও নবায়নঃ

(ক) আবেদন প্রাপ্তির সাথে সাথে সংশিস্নষ্ট সংস্থাসমূহে তদমেত্মর জন্য প্রেরণ করা হয়। তদমত্ম প্রতিবেদন পাওয়ার পর পরীক্ষামেত্ম লাইসেন্স প্রদান করা হয়।

            (খ) লাইসেন্স নবায়নের ফি প্রদানপূর্বক নবায়নের জন্য আবেদন করলে সাথে সাথে নবায়ন করা হয়।

৪। সিএনজি ফিলিং স্টেশন ও পেট্রোল পাম্প স্থাপনের অনাপত্তি সনদ প্রদানঃ

আবেদন প্রাপ্তির সাথে সাথে সংশিস্নষ্ট সংস্থাসমূহে তদমেত্মর জন্য প্রেরণ করা হয়। তদমত্ম প্রতিবেদন পাওয়ার পর পরীক্ষামেত্ম অনাপত্তি সনদ প্রদান করা হয়।

৫। খনিজ দ্রব্য (জ্বালানী তেল, গ্যাস ও অন্যান্য) বিক্রির অনাপত্তি সনদ প্রদানঃ

আবেদন প্রাপ্তির সাথে সাথে সংশিস্নষ্ট সংস্থাসমূহে তদমেত্মর জন্য প্রেরণ করা হয়। তদমত্ম প্রতিবেদন পাওয়ার পর পরীক্ষামেত্ম অনাপত্তি সনদ প্রদান করা হয়।

 

৬। মেলা/বাণিজ্য মেলা অনুষ্ঠানের অনুমতি প্রদানঃ

বাণিজ্য মন্ত্রণালয় কর্তৃক ধার্যকৃত ফি দাখিলপূর্বক স্থানীয় চেম্বারের অনুমতিপত্র ও সংশিস্নষ্ট মাঠ কর্তৃপক্ষের চুক্তিনামাসহ আবেদন করলে সংশিস্নষ্ট সংস্থাসমূহের নিকট তদমেত্মর জন্য প্রেরণ করা হয়। তদমত্ম প্রতিবেদন প্রাপ্তির পর শর্ত সাপেক্ষে মেলা/বাণিজ্য মেলা অনুষ্ঠানের অনুমতি প্রদান করা হয়।

৭। যাবতীয় বিনোদনমূলক অনুষ্ঠানের অনুমতি প্রদানঃ

আবেদন প্রাপ্তির এক দিনের মধ্যে তদমত্মক্রমে প্রতিবেদন প্রেরণের জন্য পুলিশ সুপার, জেলা বিশেষ শাখা, কুমিলস্না বরাবর প্রেরণ করা হয়। তদমত্ম প্রতিবেদন প্রাপ্তির পর শর্ত সাপেক্ষে অনুষ্ঠানের অনুমতি প্রদান করা হয়।

৮। বিভিন্ন সভা/সেমিনার ও ধর্মীয় অনুষ্ঠানের অনুমতি প্রদানঃ

আবেদন প্রাপ্তির এক দিনের মধ্যে তদমত্মক্রমে প্রতিবেদন প্রেরণের জন্য পুলিশ সুপার, জেলা বিশেষ শাখা, কুমিলস্না বরাবর প্রেরণ করা হয়। তদমত্ম প্রতিবেদন প্রাপ্তির পর শর্ত সাপেক্ষে অনুষ্ঠানের অনুমতি প্রদান করা হয়।

৯। কারাগারে আটক বন্দীদের সাথে সাক্ষাতের জন্য অনুমতি প্রদানঃ

            বিজ্ঞ আদালতের অনুমতি সাপেক্ষে আবেদন প্রাপ্তির পর প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়।

১০। বিনা ময়না তদমেত্ম লাশ দাফনের অনুমতি প্রদানঃ

            আবেদন প্রাপ্তির পর পরীক্ষামেত্ম প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়।

১১।      মহামান্য হাই কোর্টের বিভিন্ন আদেশ তামিলঃ

            আদেশ প্রাপ্তির সাথে সাথে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়।

১২। বিজ্ঞ জেলা ও দায়রা জজ আদালতের আদেশ তামিলঃ

            আদেশ প্রাপ্তির সাথে সাথে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়।

১৩। বিজ্ঞ দেওয়ানী আদালতের ডিক্রী জারীর আদেশ তামিলঃ

            বিজ্ঞ আদালতের চাহিদাপত্র প্রাপ্তির পর ধার্য তারিখের পূর্বেই বিজ্ঞ নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োগ করা হয়।

১৪। বিভিন্ন জেলা হতে প্রাপ্ত প্রসেস (নোটিশ/সমন/ওয়ারেন্ট) তামিলঃ

            প্রসেস প্রাপ্তির সাথে সাথে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়।

১৫। বিভিন্ন আদালত হতে প্রাপ্ত সাক্ষীর প্রসেস (সমন/ওয়ারেন্ট) তামিলঃ

            প্রসেস প্রাপ্তির সাথে সাথে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়।

১৬। ময়না তদমেত্মর জন্য কবর থেকে লাশ উত্তোলন ও সুরতহাল রিপোর্ট প্রস্ত্ততকালে উপস্থিত থাকার জন্য বিজ্ঞ নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োগঃ

          বিজ্ঞ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের আদেশ প্রাপ্তির সাথে সাথে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়।

১৭। বিজ্ঞ পিপি, স্পেশাল পিপি, অতিরিক্ত পিপি ও এপিপিগণের ভাতাদি প্রদানঃ

            বরাদ্দ প্রাপ্তি সাপেক্ষে বিল দাখিলের পর বিধি অনুসরণপূর্বক চেক প্রদানের ব্যবস্থা করা হয়।

১৮। ছাপাখানার ঘোষণাপত্র প্রদানঃ

আবেদন প্রাপ্তির সাথে সাথে সংশিস্নষ্ট সংস্থাসমূহে তদমেত্মর জন্য প্রেরণ করা হয়। তদমত্ম প্রতিবেদন পাওয়ার পর পরীক্ষামেত্ম ঘোষণাপত্র প্রদান করা হয়।

১৯। পত্রিকার ঘোষণাপত্র প্রদানঃ

আবেদন প্রাপ্তির সাথে সাথে তদমেত্মর জন্য পুলিশ সুপার, জেলা বিশেষ শাখা, কুমিলস্না বরাবর এবং ছাড়পত্রের জন্য চলচ্চিত্র ও প্রকাশনা অধিদপ্তর, ঢাকা বরাবর প্রেরণ করা হয়। তদমত্ম প্রতিবেদন ও ছাড়পত্র পাওয়ার পর পরীক্ষামেত্ম ঘোষণাপত্র প্রদান করা হয়।

২০। আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ :

আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি সংক্রামত্ম যে-কোন সংবাদ পাওয়ার সাথে সাথে আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে বিজ্ঞ নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োগসহ অন্যান্য আইনানুগ পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়। এছাড়া যে-কোন সংস্থার চাহিদার প্রেক্ষেতে আইন-শৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণে প্রয়োজনীয় কার্যক্রম গ্রহণ করা হয়।

 

২১। কুমিলস্না কেন্দ্রীয় কারাগারের বিভিন্ন কার্যক্রম পরিচালনাঃ

কুমিলস্না কেন্দ্রীয় কারাগারে মাসিক ও ত্রৈমাসিক সভা অনুষ্ঠান, বিজ্ঞ জেলা ম্যাজিস্ট্রেট কর্তৃক মাসিক পরিদর্শন এবং অন্যান্য কার্যক্রম পরিচালনা করা হয়।

২২। কুমিলস্না কেন্দ্রীয় কারাগারের বন্দী মুক্তি প্রদান কার্যক্রমঃ

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় কর্তৃক জারীকৃত পরিপত্রের নির্দেশনা অনুযায়ী জেলা কমিটির সিদ্ধামত্ম মোতাবেক বন্দী মুক্তি প্রদানের জন্য স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে প্রসত্মাব প্রেরণ করা হয়। প্রসত্মাব অনুমোদনের পর পরবর্তী কার্যক্রম গ্রহণ করা হয়।

 

২৩। পাবলিক পরীক্ষাসমূহ পরিচালনাঃ

বিভিন্ন পাবলিক পরীক্ষা সুষ্ঠুভাবে ও নকলমুক্ত পরিবেশে অনুষ্ঠানের জন্য পরীক্ষাকেন্দ্রে বিজ্ঞ নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োগ করা হয়।

২৪। মোবাইল কোর্ট পরিচালনাঃ

মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ ও অন্যান্য মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা মোতাবেক মোবাইল কোর্ট আইন, ২০০৯-এর তফসীলভূক্ত প্রায় সকল আইনের আওতায় উপজেলা নির্বাহী অফিসারগণ প্রমাপ অনুযায়ী মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে এ কার্যালয়ে প্রতিবেদন প্রেরণ করেন এবং এ কার্যালয়ের  বিজ্ঞ নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটগণ কর্তৃক প্রায় প্রতিদিন মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করা হয়। এছাড়া বিভিন্ন সংস্থার চাহিদার প্রেক্ষেতে মোবাইল কোর্ট পরিচালনার জন্য বিজ্ঞ নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োগ করা হয়। মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ ও অন্যান্য মন্ত্রণালয়ে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা সংক্রামত্ম মাসিক প্রতিবেদন নিয়মিত প্রেরণ করা হয়।

 

২৫। মাদকদ্রব্য ও চোরাচালান নিয়ন্ত্রণে টাস্কফোর্স অভিযান পরিচালনাঃ

মাদকদ্রব্য ও চোরাচালান নিয়ন্ত্রণে প্রতিদিন টাস্কফোর্স অভিযান পরিচালনার জন্য বিজ্ঞ নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োগ করা হয়। এছাড়া প্রত্যাশী সংস্থার চাহিদার প্রেক্ষেতেও টাস্কফোর্স অভিযান পরিচালনার জন্য বিজ্ঞ নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োগ করা হয়।

২৬।     ফৌজদারী কার্যবিধির ১৪৪ ধারা জারীঃ

যে-কোন সংস্থার চাহিদার প্রেক্ষেতে আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে কুমিলস্না মহানগর এলাকায় বিজ্ঞ অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট কর্তৃক ফৌজদারী কার্যবিধির ১৪৪ ধারা জারী করা হয়। কুমিলস্না মহানগর এলাকার বাহিরে সংশিস্নষ্ট উপজেলা নির্বাহী অফিসারগণকে ফৌজদারী কার্যবিধির ১৪৪ ধারা জারীর নির্দেশ প্রদান করা হয়।

২৭। নির্বাহী তদমত্ম সম্পন্নকরণঃ

চাহিদা প্রাপ্তির সাথে সাথে তদমত্মক্রমে প্রতিবেদন প্রেরণের জন্য বিজ্ঞ নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োগ করা হয়। তদমত্ম প্রতিবেদন পাওয়ার পর তা কমিশনার, চট্টগ্রাম বিভাগ, চট্টগ্রাম মহোদয়ের কার্যালয়ে প্রেরণ করা হয়।

২৮। জাতীয় ও স্থানীয় নির্বাচন পরিচালনাঃ

জাতীয় ও স্থানীয় নির্বাচনসমূহ সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করার লক্ষি্য আইন-শৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণে বিজ্ঞ নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োগ করাসহ অন্যান্য সকল কার্যক্রম পরিচালনা করা হয়।

২৯। সড়ক ও মহাসড়কের যানজট নিয়ন্ত্রণঃ

জেলার সকল জাতীয় ও আঞ্চলিক মহাসড়ক, স্থানীয় সড়ক, বিভিন্ন বাসস্ট্যান্ড, হাট-বাজার এবং জেলা ও উপজেলা শহরের যানজট নিয়ন্ত্রণে সভা অনুষ্ঠান ও বিজ্ঞ নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োগসহ বিভিন্ন কার্যক্রম পরিচালনা করা হয়ে থাকে।

৩০। রাজনৈতিক কারণে দায়েরকৃত হয়রানীমূলক মামলা প্রত্যাহারঃ

            এ বিষয়ে সরকারি সিদ্ধামত্ম মোতাবেক প্রয়োজনীয় কার্যক্রম গ্রহণ করা হয়।

প্রোফাইল

ছবি নাম মোবাইল
http://www.patuakhali.gov.bd/sites/default/files/files/www.patuakhali.gov.bd/officer_list/9e1af3ca_1795_11e7_9461_286ed488c766/sabecun.jpg সাবেকুন নাহার 01918120052

প্রোফাইল

ছবি নাম মোবাইল

প্রোফাইল

প্রোফাইল

0

প্রোফাইল

প্রোফাইল

প্রোফাইল

প্রোফাইল

0

প্রোফাইল

জেলা প্রশাসকের কার্যালয়

পটুয়াখালী।